ব্যাটিং-বোলিংয়ে উন্নতি চান মাশরাফি

01

সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে পছন্দ করেন। ব্যর্থতার দায়ও সবার আগে নিজের কাঁধেই নিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। বললেন নিজের বোলিং নিয়ে অসন্তুষ্টির কথা। বাংলাদেশ অধিনায়ক জানালেন সামগ্রিক উন্নতির তাগিদ।

আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে বুধবার নিউ জিল্যান্ডের কাছে ৪ উইকেটে হেরে গেছে বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে ভালো শুরুর পরও বাংলাদেশ থমকে গেছে ২৫৭ রানে, যেখানে প্রয়োজন ছিল আরও কিছু রান। বল হাতে শুরুটাও ভালো হয়নি দলের।

অনেকবার প্রথম ওভারেই দলকে সাফল্য এনে দেওয়া মাশরাফি এদিন প্রথম তিন বলেই হজম করেন চার ও ছক্কা। সুবিধা করতে পারেননি পরেও। ম্যাচ শেষে নিজের দায়টা অকপটে মেনে নিলেন অধিনায়ক। আক্ষেপ করলেন ব্যাটিংয়ে কিছু রান কম হওয়ার।

“শুরুর দিকে বোলিং আরও ভালো হতে পারত, বিশেষ করে আমার। সাকিব ভালো করেছে। আমি পারিনি। ব্যাটিংয়ে আমাদের ২০ রানের ঘাটতি ছিল। জুটি গড়েছি আমরা, কিন্তু বড় করতে পারিনি। আউট হয়ে গেছি।”

হতাশার ম্যাচেও অবশ্য কিছু ইতিবাচক দিক খুঁজে পেয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

“সৌম্য রান করেছে, মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহও রান পেয়েছে আবার। টপ অর্ডারে তামিম ও সৌম্য ভালো জুটি গড়েছে। মুস্তাফিজ ভালো করেছে। রুবেল দারুণভাবে ফিরেছে।”

সৌম্য ও মুশফিক অর্ধশতক করলেও দায় নিতে হবে বড় ইনিংস খেলতে না পারার। থিতু হয়ে বড় ইনিংস খেলতে পারেননি দলের সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। শেষ দিকে দলকে টেনেছেন মাহমুদউল্লাহ ও মোসাদ্দেক।

বোলিংয়ে মাশরাফির ছিল বাজে দিন। সহায়ক উইকেটেও বিবর্ণ ছিলেন সাকিব আল হাসান ও মেহেদী হাসান মিরাজ। পরের ম্যাচে সব জায়গাতেই উন্নতির অবকাশ দেখছেন মাশরাফি।

“সব জায়গায়ই উন্নতি করতে হবে। ফিল্ডিং অবশ্য আজকে ভালোই ছিল। কিন্ত ব্যাটিং ও বোলিং ভালো করতে হবে। আজকে যেমন বলেছি, ২০ রানের মতো কমতি ছিল। বোলিংয়ে শুরুতে উইকেট নিতে হবে।”

উন্নতি দেখানোর সুযোগটি এসে যাচ্ছে দ্রুতই। শুক্রবারই বাংলাদেশের পরের ম্যাচ। ডাবলিনের ম্যালাহাইডে প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড।

 

Leave a Reply