তথ্য না দেয়ায় মাদারীপুরের তিন কর্মকর্তাকে ৬০০০ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ তথ্য ক‌মিশ‌নের

madaripur-news-07-07-17-pic-2-1024x493

তথ্য অধিকার আইনে যথাসময় তথ্য না দেয়ায় মাদারীপুরের গণপূর্ত বিভাগের তিন কর্মকর্তাকে ৬০০০ টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দিয়েছে তথ্য কমিশন। সেই সা‌থে ১০ কার্যাদিবসে যথাযথ তথ্য দেয়ারও নির্দেশ দেয়া হয়। বৃহস্পতিবার বি‌কে‌লে তথ্য কমিশন কার্যালয়ে এক শুনানিশেষে এ নির্দেশ দেয়া হয়।
শুনানিতে অংশ নেন প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান, তথ্য কমিশনার নেপাল চন্দ্র সরকার এবং তথ্য কমিশনার অধ্যাপিকা ড. খুরশীদা বেগম সাঈদ।
অভিযোগে জানা যায়, মাদারীপুর গণপূর্ত বিভাগের আওতাভুক্ত নিজস্ব অফিস, বাসা-বাড়ি ও অন্যান্য বিষয়ে টেন্ডার আহবান করা হয় তার পূর্ণাঙ্গ নামের তালিকা, ওই প্রতিষ্ঠানের আওতাভুক্ত এপিপি ও সংশোধিত আরএপিপি এর বিগত ৫ অর্থবছরের ফটোকপি, জেলার শিবচর উপজেলার পদ্মা সেতু প্রকল্পের আওতাভুক্ত অবকাঠামো মূল্য নির্ধারণ, মৌজার সংখ্যা কত এবং কার মৌজায় কতটি ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার আছে তাদের নামের তালিকা, ক্ষতিগ্রস্থদের প্রদান করা টাকার পরিমাণ কত? মাদারীপুর গণপূর্ত বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে এ তথ্য চেয়ে তিনটি আবেদন করছিল আক্তার হোসেন বাবুল নামে এক ব্যক্তি। যিনি ˆদনিক খবর পত্রিকার মাদারীপুর জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।
অভিযোগে আরো জানা যায়, তথ্য না পে‌য়ে আবেদনকারী পরবর্তীতে আপিল করন। আপিল করেও তথ্য না পাওয়ায় তথ্য কমিশনে অভিযাগ করেন তিনি।
তথ্য কশিমনের জনসংযোগ কর্মকর্তা লিটন কুমার প্রামাণিক জানান, বৃহস্প‌তিবার শুনানিতে মাদারীপুর গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু সালেহ মোহাম্মদ ফিরোজ, মাদারীপুর গণপূর্ত উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী শাহরিয়ার হোসেন ও আবেদনকালীন মাদারীপুর গণপূর্ত বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী ও বর্তমানে গোপালগঞ্জ গণপূর্ত নির্বাহী প্রকৌশলী জোয়ারদার তাবেদুন নবীকে ৬০০০ টাকা ক্ষতিপূরণ এবং আবেদনকারীর তথ্য প্রদানের নির্দেশ দেয়া হয়। যা আগামী ১০ কার্যাবিদসের মধ্য প্রদাণের নির্দেশও দেয়া হয়।

Leave a Reply