আটলান্টায় ৩০ জুন রোববার চলচ্চিত্র উৎসব।। সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন।

আগামী ৩০ জুন ,রোববার আটলান্টায় রুহানা চ্যানেল আই ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০১৩ এর তিনটি  চলচ্চিত্র নিয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে “বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৩” ।  এ উপলক্ষে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন। এখন শুধু অপেক্ষার পালা। উল্লেখ্য, গুইনেট কাউন্টির ৪০৫ প্লিজেণ্ট হিল রোড, লিলবার্ন, জর্জিয়া, ৩০০৪৭ এই ঠিকানাস্থ বার্কমার হাই স্কুল মিলনায়তনে বিকেল চারটা থেকে রাত পর্যন্ত সময়ে ইমপ্রেস টেলিফিল্মের নির্মাণ করা তিনটি ছবি যথাক্রমে গৌতম ঘোষের “মনের মানুষ”, প্রয়াত হুমায়ুন আহমেদের “ঘেঁটু পুত্র কমলা” ও নাসির উদ্দিন ইউসুফের “গেরিলা” প্রদর্শিত হবে। আয়োজক পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, একসাথে এই তিনটি ছবি উপভোগ করতে মাত্র দশ ডলারের প্রবেশ পত্র সংগ্রহ হবে।

এদিকে আটলান্টায় এধরনের গুণগত মানের সুস্থ্য রুচিসম্মত তিনটি ছবি একসাথে দেখার সুযোগ পাওয়া যাবে ভেবে  আটলান্টার বাংলাদেশীদের মধ্যে বেশ উৎসাহ ও উদ্দীপনা পরিলক্ষিত হচ্ছে। অনেকেই প্রবেশ পত্র নিশ্চিত করতে টেলিফোন ও ই মেইল যোগে আয়োজকদের কাছে খোঁজখবর নিচ্ছেন। এব্যাপারে আয়োজক গোষ্ঠী জানিয়েছেন যে, প্রবেশ পত্র সরাসরি থিয়েটার কক্ষের প্রবেশ পথের সামনেই পাওয়া যাবে। তবে সুবিধাজনক আসন পেতে হলে আগেভাগেই বার্কমার স্কুলের থিয়েটার স্থলে হাজির হবে এবং কর্তৃপক্ষও আগে এলে আগে পাবেন- এই ভিত্তিতে দর্শকদের কাছে প্রবেশ পত্র প্রদান করবেন।  আয়োজক গোষ্ঠীর অন্যতম সংগঠক ডাঃ মুহাম্মদ আলী মানিক সুস্থ্যধারার সামাজিক বিনোদনে পরিপূর্ণ এই তিনটি ভালো ছবি যাতে কেউ মিস না করেন, সেজন্যে এখন থেকেই ৩০ জুনের রোববার দিনটি চলচ্চিত্র উৎসবের জন্যে বরাদ্দ করে রাখার আহবান জানান।

আয়োজক পক্ষের অন্যতম সংগঠক সাংবাদিক, লেখক ও সংস্কৃতি কর্মী রুমী কবির ছবি তিনটি সত্যিকার অর্থেই সবাইকে নিয়ে উপভোগ করবার মতো রুচিসম্মত বিনোদনধর্মী ছবি বলে মন্তব্য করে বলেন, “বাংলাদেশে ইদানিং তিন ধরনের ছবি নির্মিত হচ্ছে, আর সেগুলি হচ্ছেঃ  ধুমধারাক্কা মারদাঙ্গা ও যৌন সুড়সুড়ির কুরুচি সম্পন্ন অস্লীল ছবি যা গ্রাম বাংলার অসংখ্য দর্শক সেসব দেখছেন এবং তাঁদের স্থুল মানসিকতাকে সমাজের পঙ্কিলতায় ঠেলে দিচ্ছেন। এই ছবিগুলো রমরমা ব্যবসায়িক মুনাফাও অর্জন করছে । দ্বিতীয় পর্যায়ে এক ধরনের ছবি তৈরি হচ্ছে, যেখানে নির্মাতাগণ তাঁদের সুস্থধারার কমিটমেণ্ট নিয়ে সমাজের মানুষদের সোজা হয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রক্রিয়ায় শিল্প সম্মত প্যারালাল বা সমান্তরাল ধারার আর্ট ফিল্ম তৈরি করছেন জাতিকে সঠিক দিক নির্দেশনা দেয়ার প্রচেষ্টায়। কিন্তু এই ছবিগুলো জাতীয় পুরস্কার লাভ করলেও দর্শক নন্দিত হতে ব্যর্থ হচ্ছে যথাযথ বিনোদনের খোরাক না থাকায় এবং কখনো কখনো দর্শকগণ এইসব ছবিগুলো বুঝে ওঠতেও সক্ষম হন না। ফলে আর্থিক লোকসানের দিকেই যাচ্ছে এই ছবিগুলো। আর তৃতীয় সারিতে যে ছবিগুলো নির্মিত হচ্ছে, সেগুলোর মূল বৈশিষ্ট্যই হচ্ছে, রুচিসম্মত ও সামাজিক ভাবে দর্শকদের সুস্থ দিক নির্দেশনা প্রদানসহ নির্ভেজাল বিনোদনপূর্ণ ছবি হিসেবে সকলের মন জয় করে নেয়া এবং এই ছবিগুলো ব্যবসায়িক সাফল্যসহ কখনো কখনো জাতীয় পুরস্কারও লাভ করছে। চ্যানেল আইএর ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ছবিগুলো মুলতঃ এই তৃতীয় সারির ছবিগুলোর গণ্ডির মধ্যেই। আর আমরা সেই ছবিগুলো থেকেই তিনটি ছবি বেছে নিয়েছি আটলান্টার বাংলাদেশী দর্শকদের জন্যে। আশা করছি, সবার কাছেই ভালো লাগবে এই তিনটি ছবি”।

উৎসাহী দর্শকদেরকে প্রবেশ পত্র সংগ্রহ সহ যে কোন সহযোগিতার জন্যে ডাঃ মুহাম্মদ আলী মানিক ৪০৪ ৭০২ ৬১৪৬, এম এইচ আকমল ৬৭৮ ৪৮১ ২৫২৯, গাইডেন হকিন্স ৪০৪ ৬৭৮ ৪৯৯ ৬৫৮৯, রুমী কবির ৪০৪ ৫১২ ৮৬৬৬, মাহবুব ভুঁইয়া ৪০৪ ২০২ ৬৪৮৪, মোহন জব্বার ৪০৪ ৭০৭ ৪৭৫০ অথবা দেবযানী সাহা ৪০৪ ৩৯৮ ৪৫০৬ এই নম্বরে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

altanta-film-festival

Leave a Reply