মুকসুদপুরে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ৩০

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে দু’টি গ্রামের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষে এএসআই ও ৫ পুলিশসহ অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে দুই ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ৬ রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে, ১৫ জনকে আটক করে।

মঙ্গলবার মুকসুদপুর উপজেলার কানুড়িয়া ও ভাজনদি গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনায় মারাত্মক আহত ১৫ জনকে ভাঙ্গা, রাজৈর ও ফরিদপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মুকসুদপুর উপজেলার সিন্ধিয়াঘাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই শাহ জামাল জানান, ভাজনদি গ্রামের বাদল মুন্সি ও কানুড়িয়া গ্রামের হাজী মোহাম্মদ আলীর মধ্যে এলাকার অধিপত্য নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

বিকেলে দিগনগর বাসস্ট্যান্ডে উজ্জ্বলের মোটর গ্যারেজে ভাজনদি গ্রামের সাহিদুল মোটর সাইকেল মেরামত করতে আসে। বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে কানুড়িয়া গ্রামের মোটর গ্যারেজ মালিক উজ্জ্বল ভাজনদি গ্রামের সাহিদুলকে চড় থাপ্পর মারে। এ ঘটনার জের ধরে দু’গ্রামের মানুষ বিকেল ৫ টার দিকে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে দিগনগর ব্রিজের দু’পাড়ে অবস্থান নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সন্ধ্যা ৭ টার দিকে গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর ও ভাংগা থেকে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিযন্ত্রণে আনে।

বানিয়াচংয়ে জমি নিয়ে সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে জমি দখল নিয়ে বিরোধের জের ধরে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে। গুরুতর আহতদের সদরসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ফের সংঘর্ষের আশঙ্কায় এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার ইকরাম গ্রামের শামীম মিয়া এবং রঙ্গু মিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে কিছু জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধ চলছে। এনিয়ে তাদের মধ্যে একাধিকবার হামলা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল সকালে উভয়পক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বিরোধপূর্ণ জমির দখল নিতে গেলে তাদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষ চলাকালে বেশ কয়েকটি বাড়িঘরে হামলা-ভাংচুর করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সিদ্ধিরগঞ্জে ড্রেজার ব্যবসা নিয়ে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১০

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা জানান, সেখানে ড্রেজার ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনার উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে সিদ্ধিরগঞ্জের সাইলোগেট এলাকায় এ ঘটনার পর সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৫নং ওয়ার্ড এলাকাধীন সিদ্ধিরগঞ্জে একটি নির্মাণাধীন বিদ্যুত্ কেন্দ্রের বালু ভরাটের কাজ নিয়ে দুই গ্রুপের সাথে প্রথমে বাকবিতন্ডা ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে উভয় গ্রুপের মধ্যে কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়।

Leave a Reply